বর্ণিল আয়োজনে চবি একাউন্টিং  বিভাগের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপিত

বর্ণিল আয়োজনে চবি একাউন্টিং বিভাগের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপিত

ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা ও বর্ণিল আয়োজনে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় একাউন্টিং বিভাগের সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব উদযাপিত হয়েছে। দুই দিনব্যাপী উৎসবের সমাপনীতে গতকাল শনিবার চবি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে সুবর্ণ জয়ন্তী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চবি উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার।

বিশেষ অতিথি ছিলেন চবি একাউন্টিং বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত প্রফেসর অমল ভূষণ নাগ, অবসরপ্রাপ্ত প্রফেসর ড. মো. আবদুল হাই ও অবসরপ্রাপ্ত প্রফেসর ড. মনজুর মোরশেদ মাহমুদ এবং বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ওয়াসিকা আয়েশা খান এমপি, সিএজি অব বাংলাদেশ মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরী, সচিব মু. মোহসিন চৌধুরী ও চবি উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) প্রফেসর বেনু কুমার দে।

সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক চবি ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন প্রফেসর মো. হেলাল উদ্দিন নিজামীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন, চবি একাউন্টিং বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আইয়ুব ইসলাম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব একাউন্টিং বিভাগের প্রফেসর ড. মো. আলী আরশাদ চৌধুরী।

উপাচার্য বলেন, দীর্ঘ ৫০ বছরে একাউন্টিং বিভাগ বিভাগ মানবসম্পদ উন্নয়নে যে অসামান্য ভূমিকা রেখেছে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা যেমন আনন্দে উদ্বেলিত তেমনি বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারও তাদের সরব উপস্থিতিতে গৌরবান্বিত। প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা এ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ অব্যাহত রেখে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক-প্রশাসনিক ও সার্বিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবেন উপাচার্য এ প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে সুবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠান সূচিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এবং আমন্ত্রিত অতিথিদের সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে কনটেম্পরারি ইস্যু অফ একাউন্টিং প্র্যাকটিসেস শীর্ষক সুবর্ণ জয়ন্তী স্মারক বক্তব্য প্রদান করেন ভারতের একাউন্টিং রিসার্চ ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও ইন্ডিয়ান একাউন্টিং এসোসিয়েশনের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ড. ভবতোষ ব্যানার্জী।

তৃতীয় পর্বে স্টার এলামনাই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ একাউন্টিং এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ড. এম. হারুনুর রশীদ। চবি একাউন্টিং বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আইয়ুব ইসলামের সভাপতিত্বে এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক চবি ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন প্রফেসর মো. হেলাল উদ্দিন নিজামী। অনুষ্ঠানে ১২৩ জন গুণী শিক্ষার্থীকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

Related post

চিটাগং কলেজ ইংলিশ এলামনাই এসোর বৃত্তি প্রদান

চিটাগং কলেজ ইংলিশ এলামনাই এসোর বৃত্তি প্রদান

চট্টগ্রাম কলেজের ইংরেজি বিভাগের সাবেক ছাত্র-ছাত্রীদের সংগঠন এলামনাই এসোসিয়েশনের উদ্যোগে উক্ত বিভাগের অনার্স ২য় বর্ষের ৪ জন ছাত্র-ছাত্রীকে নগদ ৫ হাজার…
দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই

দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই

হুইপ সামশুল হক চৌধুরী এমপি বলেছেন,শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারা বাংলাদেশের ন্যায় পটিয়াতেও ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। বিগত ১৩ বছরে পটিয়াতে সাড়ে ৫…
লিটারে ১৪ টাকা কমল সয়াবিন তেলের দাম

লিটারে ১৪ টাকা কমল সয়াবিন তেলের দাম

সয়াবিন তেলের দাম লিটারে ১৪ টাকা করে কমিয়েছে বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন।আজ সোমবার (৩ অক্টোবর) বাণিজ্য সচিবকে…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *